নর্থইস্ট-২
চেন্নাই-২
সবরকম প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে জয় আবার নর্থইস্টের। চেন্নাই এর জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়ামে ২-১ এ হারাল চেন্নাইকে। ম্যাচের ২৫ মিনিটের মাথায় হঠাৎ বৃষ্টিতে প্রায় ৪০ মিনিট খেলা বন্ধ করতে হয়। ম্যাচের শুরুতে চেন্নাই তার নিজেদের দখলে রাখে খেলা। তবে সময় এগোতেই  চলে যায় নর্থইস্টের হাতে। কোন কারনে খেলা বন্ধ হওয়ার পর আবার  তা  শুরু হলে ফুটবলারদের কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতেই হয়। যেমন উদ্যম, মনঃসংযোগ এর অভাব হবেই ফুটবলারদের। সেই সুযোগকেই কাজে লাগায় এলানো। যদিও শেষ অবধি জয় নর্থইস্টের।
আজ সারা ম্যাচ জুড়েই একজনের উপর সবার নজর ছিল। রেহেনেশ। বেশকিছু নিশ্চিত গোল থেকে বাঁচায় তার দলকে। বলতেই হয় রেহেনেশ এর সেই দুরন্ত সেভ এর কথা। যেটা এই টুর্নামেন্টের সেরার তালিকায় যোগ হতেই পারে। একহাতে যে ভাবে রাফায়েল অগাস্তের নিশ্চিত গোল বাঁচালো তা অবশ্যই প্রশংসনীয়। আসতেই হয় সিলাসের কথায়। এলেন দেখলেন আর জয় করলেন। পরিবর্ত হিসেবে নামলেন আর প্রথম টাচেই অসাধারণ গোল।প্রথম টাচেই তার ডান পায়ে ড্রিবল পরাস্ত করল প্রতিপক্ষকে। কামারার গোলটাও অসাধারণ। হঠাৎ করে সুযোগটাকে কাজে লাগান কামারা। হিরো অব দি ম্যাচ রেহেনেশ। সিদ্ধান্ত একদম সঠিক। যে ভাবে দলকে আত্মবিশ্বাস দিয়েছে তা ধন্যবাদ দেওয়ার মতই। দলের অন্য ফুটবলাররা ম্যাচ জেতাতে পারে, আর ভাল একজন গোলকিপার টুর্নামেন্ট জেতাতে পারে। রেহেনেশ সেই গোলকিপারদের মতই একজন।
ম্যাচের প্রথম থেকে যেভাবে নিজেদের দখলে নিয়ে খেলছিল চেন্নাই, বোঝা যায়নি ম্যচের শেষে খেলার  তাদের ফলাফল বিপরীতে যাবে। এডেল বেটের খেলা দেখে মনে হচ্ছিল, সেরা এটা নয়। বলবন্ত এর খেলায় বুদ্ধিদিপ্ততার ছোঁয়া ছিল। প্রথম গোলটা এলানোর পা থেকে এলেও আরও কিছু শট লক্ষ্যহীন হয়েছে।
ইন্ডিয়ান সুপার লীগ এ এই প্রথমবার কোন ম্যাচ বৃষ্টির জন্য এতক্ষণ বন্ধ থাকল। বৃষ্টিতে ফুটবল চালানো যায় ঠিকই তবে প্রানের ঝুকি নিয়ে নয়। আজ মাঠে ছিল উত্তেজনা। বৃষ্টির জন্য খেলা বন্ধ থাকলেও তার কোনরকম প্রভাব পরেনি মাঠে আসা দর্শকদের উপর। কারন মাঠ জুড়ে এই উৎসাহই ফুটবলাদের বাড়তি তাগিদ। আজকের ম্যাচের পর চেন্নাই রইল ৭এ। আর নর্থইস্ট উঠে এল ৫ নম্বরে। লীগ তালিকার একদম শেষে আছে কেরালা। তবে পরপর ২ টো জেতা ম্যাচ পাল্টে দিতে পারে কেরালাকে।